এক মুঠো ফুল নিয়ে দাঁড়িয়েছি তোমার সম্মুখে,
কিশোর যেমন চায় জননীর অকৃত্রিম প্রেম;
হৃদয়ের জ্বালাপোড়া শুকানোর বাসনার সুখে
হাঁটু গেড়ে বসে আছি- ভালোবাসি, এই জানালেম।


চারিদিকে হুতাশন দাবানল উঠিতেছে জ্বলি'
পুড়ে যাচ্ছে আমাজান হৃদয়ের গভীর অরণ্য;
জলভরা নদী হও- ময়ূরাক্ষী পদ্মা কর্ণফুলী,
অনন্ত প্রেমের ধারা ঝরে যাক জলের লাবণ্য।


উদ্ভ্রান্তের পোড়া মন ছুটে যায় দক্ষিণে উত্তরে,
প্রেমের করুণা চেয়ে লোম উঠা কুকুরের মতো;
'দুর দুর' করে তাড়াও নিষ্ঠুরা অতি ঘৃণা ভরে!
তাই, বৃক্ষের মতোন সূর্যালোক চাই অবিরত।


যদি সূর্যালোক হও, দয়াবতী প্রেম-অহমিকা,
জল নদী প্রকৃতির রূপকল্প প্রাণের মুকুর;
রজনীর অন্ধকারে জ্বেলে দাও জ্যোতির্ময় শিখা,
অর্ঘ্য রূপে দিয়ে যাই যৌবনের প্রদীপ্ত দুপুর।


০২/১০/২০১৯
মিরপুর, ঢাকা।