অরণ্যের পথ ধরে, জোছনার রাতে
হেঁটে যাই ধীরে ধীরে মেঘের দেশেতে,
কোমল স্পর্শের জন্য। চন্দ্রাহত প্রেম
শারদীয় কুয়াশায় ঢেকে যায় যদি,
পিছপা হবো না, জেনে নিও, হে প্রিয়তি!
কুসুম ফোটার রাতে, জীবন যখন
অর্বুদ দুঃখের মাঝে, বাহারী স্বপ্নের
সরোবরে স্নান করে; তখন আবেগে
আমাকে জড়িয়ে ধরো। প্রদীপ্ত চন্দ্রের
ফিনকী ফোটানো আলো ঘন অন্ধকার
ভেদ করে নেমে আসে আঁধার কুঠিরে।
অনিদ্র রাতের ব্যথা, গ্লানি, দুঃখ ভুলে
অজস্র ফুলের মালা গাঁথি রজনীর
শেষ ভাগে, অন্ধকারে, অরণ্যের পথে।


০৮/১০/২০১৯
মিরপুর, ঢাকা।