বলেছিলো সে যুদ্ধের শেষে ফিরে আসবে একটি পতাকা নিয়ে
কদম বুছির শেষে মায়ের চোখে চোখ রেখে দীপ্ত চেতনায়;
নয় মাস যুদ্ধ গেলো - কালাচাঁনের পোলা ফিরে এলো
ক্রাচে ঠক্ ঠক্ শব্দ করে ধীর অথচ দৃঢ় পদভারে,
লোনা জলের ছোঁয়ায় মা-র চোখে ঘা জমে;
শান্তনা খোঁজে ছমিরনের একমাত্র মেয়ে
যুদ্ধমাঠ থেকে ফিরেনি এখনো সে,
যুবকেরা উল্লাসে মেতেছে
ফাঁকা গুলির আওয়াজ
বিয়ে-উৎসব যেন
যুদ্ধশেষ, কান্না
মা বিষন্না
হায় যুদ্ধ,
যুদ্ধ!
যুদ্ধ নিয়েছে
ত্রিশ লক্ষ প্রাণ,
দু'লক্ষ মায়ের আব্রু,
মুক্তির কী বিশ্বাস নিয়ে
রণাঙ্গন থেকে রণাঙ্গনে গেছি;
এখনো মায়ের কান্না থামেনা ক্ষাণিক-
ক্ষুধার জ্বালা তীব্রতায় মোছড়ায় জঠর,
পতাকা উড়ে পত্ পত্ উত্তপ্ত বাতাসের মাঝে,
শকুনীরা তার সমান্তরালে উড়ে চলে শ্যেন দৃষ্টি ফেলে;
মায়ের কান্নার কি শেষ হবে না কখনো ? আবার যুদ্ধমাঠে
যেতে হবে কাঙ্খিত মুক্তির তীব্র গানের ঝংকার তুলে? বন্ধু হে!
তা হলে এসো, মুষ্ঠিবদ্ধ উদ্যত হাত উদ্বেলিত হোক প্রাণের গহীনে।