প্রতিদিন আমি স্বপ্ন ভেঙ্গে খাই;
তবুও, প্রচণ্ড ক্ষুধায় দিনগুলো কাটে,
কাঁটাময় মানুষের পৃথিবীতে।
হেঁটে গেছি বহুদূর পথ মনের অজান্তে;
পৃথিবীর রুক্ষ উষর ভূমিতে,
এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে।
গ্রহ থেকে গ্রহান্তরে
ছুটে গেছি আরো স্বপ্নের আশায়।


আজ আমি টের পাই তোমার সরস উপস্থিতি,
স্বার্থহীন সূর্যালোকের মতোন
আলোকিত করে তুলো আমার পৃথিবী।
অনন্তকালের উদ্বেগ, আতঙ্ক, অনিশ্চয়তাহীন
আমার এ মানুষজীবন,
পূর্ণ করে তোল তোমার অনন্য মহিমায়!
শৈশবের শীতল আগুনে পুড়িয়েছিলাম
যে সকল ট্যারাকোটা ইট,
আজ তারা দুঃখময় হৃদয়ের স্মৃতির ফলক!


গনগনে রোদের ভেতরে ছুটে গেছি বহুদূর পথ,
পরস্পর হাত ধরে সুসজ্জিত বাড়িঘর ছেড়ে;
প্রতিবাদ এবং পিপাসাহীন উত্তেজনা নিয়ে।
যতো দিন যায়, জীবনের সময় যতোই কমতে থাকে,
ছবিগুলো মলিন হয় না আর;
ক্রমে ক্রমে উজ্জ্বলতা বেড়ে আরও স্পষ্ট হয়ে উঠে।


সুস্বাদু খাবার, দেশি ও বিদেশি ফলফলাদি,
ধবধবে সাদা চাদরে ঢাকা নরম বিছানা,
পুষ্পময় সাজানো বাগান, সভামঞ্চে করতালি,
পুষ্পার্ঘের বিমুগ্ধতা, পদক ও তকমার বাড়াবাড়ি,
ওসব কিছুই ভালো লাগে না আগের মতো;
বিষন্নতায় কেটে যায় দিবস-রজনী।
ফুল, পাখি, নক্ষত্র, রাতের আকাশ, নদীরা
আজো কেঁদে যায় আমাদের দীর্ঘ অনুপস্থিতিতে।
জীয়নকাঠির মতো আঙুল, তুলতুলে গাল,
নিরন্তর ডেকে যায় পরাস্ত আমায়।


১৯/০৭/২০১৯
মিরপুর, ঢাকা।