অচিনের পথে আমি যতবার গিয়েছি
দেখেছি দারুন খরা; ফাল্গুনের হাওয়া
যাই যাই করে নিদাঘ চৈত্রে
অলস বেলায় ক্লান্ত পথিক উদাস চোখে
আকাশ দেখে রাত-বিরাতে।


বেণু বনে কেঁদেছিল বুনো সমীরণ
রাঙায়ে হরিৎ কুঞ্জ পুড়েছে পারিজাত
অনল-দাহের ফাগে-স্নাত বন-পলাশ
বকুল ছড়ানো বুনোপথে যেতে যেতে
দেখেছি বিবাগী পিউ, কী তার পিয়াস!


কেউ কি জ্বেলে রাখে কেতকীর সৌরভ
বরষা বিদায় হলে; ধূসর সাঁঝে ঝরা পালকের
উড়ে যাওয়া; মেঘের আঁচল তলে
মরা জোছনার কঙ্কাল; সেই কবে কোন্
'নীলকন্ঠ' উড়ে গেছে কোন্ খেয়ালে!


এখন পড়ে না মনে স্বর্ণচাঁপার, বহুকাল
পরে; হয়তো সে এতদিনে গিয়েছে যে মরে
সে-বার তাহার সাথে কত খুনসুটি
অপরূপা মাধবীও মেতেছিল সাথে
সে-ও আজ অবেলায় নিয়ে গেছে ছুটি।


১লা জুলাই ২০১৯
মিরপুর, ঢাকা।