বিভক্তির কালে
--
বিভক্তির কালে
অবিভক্ত থাকে প্রকৃতি
মহাজগত থাকে বিভক্তির প্রভাবমুক্ত,
কেবল মানুষেরা
বিভক্ত হয় দলে দলে,
ভুলে যায় বিভক্তি থাকে বৈষম্যযুক্ত।
বিভক্তির কালে
কারও পাতে পলান্ন
তবু মুখে রুচে না,অথবা দেহে সয় না,
কারও থাকে
কেবলই মরিচ ভাত
কখনও শুধু পান্তা,কখনো বা তা-ও  রয় না।
উপচে পড়ে
প্রয়োজন নেই তবু
অপ্রয়োজনীয় বিলাসে কত অর্থের অপচয়,
জুটেনা কাপড়
বিলাসিতা দূরে থাক
লজ্জা ঢাকার আবরণ জুটে না,এমনও হয়।
বিভক্ত সমাজে
উঁচুনিচু ভেদের লালন
কৃত্রিম গৌরবে ক্ষণিক সুখানুভূতির আবেশ,
সজোরে দূরে
ঠেলে দেয় তারা
থাকে না অনুভূতি,থাকে না মমতার রেশ।
বিভক্তির কালে
বিবেক থাকে ঘুমন্ত
আর দিনে দিনে মানবতা হেরে যায় লজ্জায়,
বিভক্তির কালে
বিভক্ত সমাজে যেন
দুঃখ থাকে হীনবলে,বসবাস কণ্টকশয্যায়।
পুরনো পৃথিবীর
আদিম যে পূর্বপুরুষ
রহস্যনগরে বসে আর হাসে,খুব দূর নয়তো;
বিভক্ত সমাজ
একত্রিত হয়ে যাবে
দলিতরা ভেঙে দেবে পাষাণের প্রাচীর হয়তো।
---২৩/১০/২০১৯