দূর করি জঞ্জাল
--
কিসের প্রতীক্ষায় ওরা?
সকরুণ চোখে কাতর আহ্বান-
শংকিত বিনিদ্র রজনী।
ভেসে যায় সব প্লাবনের
প্রমত্ত জোয়ারে,
ভেসে যায় কর্ষিত,সুফলা ভূমি।
নিমগ্ন আত্মা সব নিজস্ব পরিপ্লবে,
ঘুমন্ত আত্মা সব নিজস্ব বলয়ে,
মানবতা নিষ্ফল কাঁদে।
গেরস্থালি টুটে যায় আগ্রাসী জলে,
মেলে না জল,মেলে না অন্ন
আশ্রয়হীন যাচে কেবলই জীবন।
মেতে থাকি বিবাদে, খুঁজি না সঞ্চয়,
হাতে হাত ধরি এসো, দেই বাড়িয়ে হাত
সঞ্চিত হোক জীবনে সঞ্চয়।
তারা চেয়ে থাকে,কান পেতে রয়
পায়ের আওয়াজ শুনবে বলে,
হাতে হাত ধরবে বলে গুনে যায় ক্ষণ।
সবকিছু আছে যদি
তবে কেন হারাবে দরদী মন,
এসো পাশে পাশে থাকি।
মানতবতা বিপন্নতা,বিষন্নতা থেকে আজ
মুক্তি পাক,এসো হাত ধরি
সরিয়ে দেই প্লাবনের জঞ্জাল।