যে আমার প্রকৃত
---------
যে আমার ছিলো,একান্তই আমার
আমার রক্তে,আমার ঘামে ভেজা
আমার আদৃত ফসল,
যে আমার চোখের তারার মতো,
যে মিশে লীন ছিলো আমার চোখের জলে
যে আমার একান্ত আপন,আমার ভালোবাসা
সে আমার পর হয়ে যায়।
আমার ভালোবাসা মিশে যায় অচেনা দূরে,
আমার ভালোবাসা আমায় ছেড়ে চলে যায়,
আমার হৃদয় টুকরো টুকরো হয়,
আমি অসহায়, আমি নিশ্চল হয়ে শুধু দেখি
আমার সযত্নে গড়া পৃথিবী কিভাবে অচেনা হয়,
আমি হারাই অধিকার,
আমি এখন অধিকার শূন্য।
যে আমার কখনই ছিলোনা,যে ফুল ফুটেছিলো অচেনা কাননে
কার রক্তে আর ঘামে ভেজা শ্রমে গড়া,জানিনা তো!
সে ক্রমশ এগিয়ে আসে,ভরে দিতে শূন্যতা আমার,
আমায় ভরিয়ে দিতে নতুন একটি ভালোবাসায়।
আমার মাথায় একটি অস্থির আলোড়ন,
করোটির ভেতরে অসংখ্য বর্ণিল,বিবিধ রঙ খেলা করে,
অস্থির স্ফূলিঙ্গ- দিশেহারা করে আমাকে,
আমার মনে হলো আমার শেষ যাত্রা শুরু হলো অজানা গন্তব্যে।
আমি সপে দিয়েছি আমাকে,আমার স্রষ্টার কাছে,
যা কিছু আমার ভুল কিংবা শুদ্ধ,
যা কিছু আমার পাপ কিংবা পূণ্য,
সব আমি করলাম তোমাতে সমর্পণ।
প্রভু,আমায় ক্ষমা করে দিও,
আমি আমার বেঁচে থাকা অবধি যা কিছু করেছি ভোগ,
যা কিছু আমার অপচয়,যা কিছু আমার অর্জন,
আমার ভবিষ্যৎ,আমার বর্তমান,আমার অতীত,
আমার ভালো কিংবা মন্দ সব তোমাতে সমর্পিত।
আমি তোমাতে খুঁজে ফিরি আমার অস্তিত্ব,
আর একটি সকরুণ ক্ষমা।
অতঃপর আমি পরিশুদ্ধ হলাম,
আমার অন্তর জাগ্রত হলো,আমার চক্ষু উন্মুক্ত হলো,
আমি দেখলাম আমি আবার দাড়িয়ে আছি
বিশাল পৃথিবীর অসীম সময়ের একটি ক্ষুদ্র লগ্নে,
আমি আবার জাগ্রত হলাম,বিলুপ্ত চেতনা আমার ফিরে এলো।
সমস্ত অধ্যায় শেষে শুরু হলো আরেকটি গ্রন্থ,
জীবনের নতুন গ্রন্থ,তুমি এলে
আমি টের পেয়েছি নতুন ফুলের গন্ধ।
কাঁটা নাকি সৌরভ কোনটা জানিনা,
তবে আমি তোমায় ভালোবাসলাম,
বিমুগ্ধ চেতনা জানান দিলো এই আমার সেই আপন,
যে ছিলো আমার সে আসলে আমার নয়,
সে অন্য কারো,অন্য কারো মৃত্তিকা,
অন্য কারো উত্তরাধিকার,অন্য কারো ভালোবাসা।
আমার চোখের জল অপেক্ষায় অন্য কারো,
যে ছিলোনা আমার কখনই
সে ক্রমশ এগিয়ে আসে,দখল করে নেবে
সে আমার নতুন ভালোবাসা,
আমার অস্তিত্ব ওখানেই সঞ্চারিত হবে,
আমার ধারা মিশে যাবে তার সাথে
আমি আবার ফিরে পাবো আমার হৃত গৌরব।
অসীম শূন্যতা আমার ভরে যায়
ফিরে পাবার আকুল প্রতীক্ষায়।
কে আমার ছিলো,কে আমার অবশেষে আপন হয়
সবই বিধাতার খেলা,
ওখানে আমার কোনও হাত নেই।
০৫/১১/২০১৮