অবিশ্বাস্য প্রস্থান
---- নাসরীন আক্তার খানম।
জীবন বুঝি এমনই হয়!
বালুচরে ঘর বাঁধা।
আলেয়ার পিছনে ছুটে চলা অবিরাম,
নেই ক্লান্তির পরশ
নেই শ্রান্তি,নেই জীবনের সঠিক ছন্দ,
তাই সব ভুলে ডুবে থাকা
আজন্ম, জীবন নামক ডুব সাতারে।
ফিরে তাকানোর নেই অবসর।
চকিতে ভুলেও মনে পড়েনা।
মনে পড়েনা মায়াময় পৃথিবীর সবটাই মায়া।
দৃশ্যগুলো পড়ে থাকে অবহেলে।
দৃষ্টি নিমগ্ন দিন যাপনের ডায়েরীর পাতায়।
অকস্মাৎ হানা দিয়ে নিয়ে যায়,
নিয়ে যায় অচেনা রহস্য নগরীতে।
পড়ে থাকে ধূমায়িত কাপ,
পড়ে থাকে সকল কাজের জঞ্জাল।
বড় একাকী সে নিষ্ঠুর সময়।
নিমেষে বিমুঢ় করে দেয় সব,
আর্তনাদে কাঁদে পরিচিত প্রাঙ্গন।
বোবা কান্নায় ডুকরে মুষড়ে পড়ে
ভালবাসার প্রতিটি জন।
এ কেমন যাত্রা? যদিও সুনিশ্চিত তবুও অনিশ্চিত।
অনিশ্চিত, অসময় আর অনাকাঙ্ক্ষিত প্রস্থান।
অবিশ্বাস্য প্রস্থানে কাঁদে নাগরিক মানুষেরা,
কাঁদে শহরের ধূলিকনা।কাঁদে অহোরাত্র-
আকাশ আর বাতাস।
এ বড় অবিশ্বাস্য প্রস্থান- নিয়তির অমোঘ খেলার এক নিষ্ঠুর লিখন।
১/২/২০১৮