অবশিষ্ট
---
নক্ষত্র ভরা চাঁদহীন রাতে আমি শুনি,
দূর কোন অচিনলোক থেকে ভেসে আসা নৈঃশব্দের গান।
কোন এক শুভক্ষনে বাঁশি বেজেছিলো আত্মার রন্ধ্রে রন্ধ্রে- বিমোহিত আমি আজো কান পেতে রই সেই মোহন সুর শুনব বলে।
সবুজ ঘাসের বিছানায় এক বিষন্ন পথিক
আনমনে বসে ঘাসের নরম ডগাগুলো চিবুতো আর ভাবতো রূপকথার কোন এক রাজকণ্যার কথা।
কল্পিত নয় বাস্তবের সেই রাজকন্যা চোখের সামনেই হাসতো খেলতো বেড়াতো।
কোনদিন খেলার ছলেও হয়নি বলা মনের গোপন কথাটি,রয়ে গেল মনে সংগোপনে।
উড়ন্ত ঐ শীতপাখিটা যতদূর যায়,
তার চে বেশিদূর গিয়ে এই মন একা একা ভাসে।
একাকী আকাশে একা একা ভেসে আলোর রং মাখে।
বর্ণিল ছটায় নিজেকে সাজিয়ে, একাই কাঁদে আর একাই হাসে।
একদিন যে কথাটি বলার ছিল হয়নি বলা,
শুধু অকারণ বয়ে গেল বেলা।
জীবন তরীর শূন্য আধার রয়ে গেল অপূর্ণতার মাঝে।
মাঝে মাঝে নাটাই উড়ালে আকাশে পথিক ভাবে
এইতো আমি, আমার আর কোন অবশিষ্ট নাই।
---২০/১২/২০১৬