প্রাচীর
--
ডাহুক না ডাকুক প্রান্তরে
না উড়ুক গাঙচিল আকাশে,
পাতার বাঁশিতে না বাজুক
চিরচেনা সুর,
প্রতিধ্বনি না আসুক ফিরে,
প্রাচীর ভেঙে ফেলো।
মাটি সোনা হয়,
মাটি হয় ছাই,
মাটিতে ঠাঁই অবশেষে
মাটি বিভাজিত স্বার্থের দ্বন্দ্বে,
মাটিতে নিষিদ্ধ পদসঞ্চার,
প্রাচীর ভেঙে ফেলো।
উচ্চারিত ক্ষীণ কণ্ঠ,
অজস্র প্রশ্নমালা
নিরুত্তর ছবি,হাসে পৃথিবী,
কোথাও থাকবে না প্রশ্ন,
উত্তর থাকে না প্রশ্নের,
প্রাচীর ভেঙে ফেলো।
বড় আশা করে
স্বপ্নের বীজ বুনে কেউ,
কেউ ধ্বংসে অবলীলায়,
নিষ্পলক দেখে যায় অষ্টপ্রহর,
কোথাও কেউ নেই কারও জন্য,
প্রাচীর ভেঙে ফেলো।
প্রাচীর গড়ে বিয়োজিত অন্তরে,
প্রাচীর হয় মাটি ভেদ করে,
প্রাচীরে ধার্য হয় মানুষের ঠিকানা ;
অথচ বাতাস ক্ষয় করে মাটি,
বাতাস উড়ায় ধূলিকণা,
তবু প্রাচীর ভাঙে না কেউ।
০২/০৩/২০২০