মক্কা থেকে পাঁচ মাইল দূরে, থর নামের এক পাহাড়ে
মোহাম্মদ ও আবুবকর আশ্রয় নেয় সে রাত্রির আঁধারে।
তখনই সে গুহার ছোট্ট মুখে মাকড়সা বুনে ফেলে জাল,
বাসা বেঁধে ডিম পেড়ে দুইটি কবুতর হয়ে গেল বহাল।


সেদিন ভোরে শত্রুরা একযোগে ঢোকে মোহাম্মদের ঘরে
দেখে আলী শুয়ে আছে মোহাম্মদের বিছানার উপরে।
মোহাম্মদ কোথায়? প্রশ্ন করে আলীকে হতভম্ব সকলে
আলী বলে, জানি না, মোহাম্মদ কোথায় গিয়েছে চলে।


মোহাম্মদ ও আবুবকর পলাতক - সকলেই বোঝে
চতুর্দিক ছোটে সবে দলে দলে দুজনের খোঁজে।
সবশেষে এসে গেল থর পর্বতের সে গুহার মুখে
এই শেষ - কেঁদে ওঠে আবুবকর ভয় নিয়ে বুকে।


ভয় নয়, দুঃখ নয়, আল্লাহ আছে আমাদের সাথে,
ভেবো না আমরা দুজন, সপে দাও নিজেকে তাঁরই হাতে -
এই বলে মোহাম্মদ দেয় বন্ধু আবুবকরকে সান্ত্বনা
আল্লাহর পরিকল্পনা হয়তো তখনও তাঁরা জানতো না।


গুহা মুখে শত্রুরা দেখে মাকড়সার জাল, কবুতরের বাসা
ফিরে যায় ভেবে মোহাম্মদক সে গুহায় পাবার নেই আশা।
কী এক অদ্ভূত খেলা দেখালো আল্লাহ, সেজন কী করে
বাঁচায় তারে যারে চায়, মৃত্যু এসে দাড়ালেও শিয়রে।

আল্লাহর নবী আল্লাহর দরবারে হাত তুলে প্রার্থনা করে
পুরস্কৃত করো আমার প্রাণ রক্ষক মাকড়সা ও কবুতরে।
আমার নিষেধাজ্ঞা রইল আমার উম্মত মুসলমানের উপর
তারা যেন সদয় হয়, না করে হত্যা মাকড়সা ও কবুতর।

সে গুহায় আবুবকর ও মোহাম্মদ তিনদিন লুকায়িত থাকে
ফুহায়রাহ - আবুবকরের মুক্তি দেয়া দাস - খোঁজ খবর রাখে।
তার পশুর পাল নিয়ে যেতো সে চরাতে সেথা সে গুহার কাছে
ভেড়ার দুধ খেয়ে যেন, নবীজি ও আবুবকর দুইজনেই বাঁচে।

আবুবকরের পুত্র আবদুল্লাহ দিয়ে যেতো সমস্ত খবর
যতক্ষণ না তাঁদের ধরার আশা ভুলে যায় শত্রুর অন্তর।
চতুর্থ দিনে আনে দুইখানা উট দুজনের তরে
আল্লাহর নামে মদীনার পথে আবার যাত্রা শুরু করে।

আবু-লাহাব ঘোষিত একশ উটের লোভে সুরাকাহ ছোটে পিছে
তার তীরের ভয়ে আবুবকর উতকন্ঠ - সবকিছু হলো বুঝি মিছে।
আল্লাহর নবী মোহাম্মদ শান্ত কণ্ঠে বলে, করো কেন ভয়
আমাদের সাহায্য ও রক্ষার তরে আল্লাহই কি যথেষ্ঠ নয়?

অতপর আল্লাহর কাছে হাত তুলে নবীজি করে প্রার্থনা -
রক্ষা করো, আমরা তোমার দাস বই কিছুই আর তো না।
মরুর বালু নেয় তখন সুরাকাহর ঘোড়ার পদদ্বয় গিলে
আকুতিতে তার, নবীজির দোয়ায় আবার তার মুক্তি মিলে।

সুরাকাহ বোঝে, সে ছিল সত্য নবীর অলৌকিক ক্ষমতা
বিনিময়ে প্রতীজ্ঞা - তাঁদের সে পথ জানবে না কোরাইশ জনতা।
সুরাকাহর মনে সেদিন যে বিশ্বাসের বীজ হয়েছিল বোনা
আট বছর পর ইসলাম গ্রহণে সেই বৃক্ষে ধরেছিল সোনা।

সমস্ত বাধা শেষে নবীজি ও আবুবকর মদীনাতে পৌঁছায়
ইসলামের নতুন সূর্য ডাকে - হে বরেণ্য এসো মদীনায়।
সে সূর্যের আলো ক্রমে সমস্ত অন্ধকার নিরসন করে
সত্যধর্ম ও তার সুবিচারে এ পৃথিবী দিয়ে গেছে ভরে।
---------------------------------
** 'ঐশী আলোর ছটা' কাব্যগ্রন্থের জন্য