আজি শ্রাবণ-ঘন বরিষণ
শুধু উদাস করে এই মন
জানি না, আমি জানি না কি যে করি
যে জন বিরাজে আজি দূরে
কেন বৃথা গুন গুন সুরে
তাহারেই ক্ষণে ক্ষণে ভাবিয়া যে মরি?


কেন বহিছে বাতাস আজি উন্মাদ সম
উথালি পাথালি ভাঙে তরুশাখা নির্মম?
কেন বহে বেদনার এই ভারীশ্বাস
এ মন কাঁদিয়া মরে এতোটা নিরাশ?
যে জন গিয়াছে ভুলিয়া
কেন শ্রাবণ-ভেজা ফুলে সে বদন স্মরি?


ঘন মেঘে লুকাইয়া অগোচরে হাঁটে দিনমনি
লাজ-অবগুণ্ঠনে বিরহি বধূ শোনে সন্ধ্যার ধ্বনি।
নিশীথ-আঁধার-নীড়ে যে পাখি একা
হারানো সাথীর সে পাবে কি দেখা?
জানি না এ ভাবনায়
বারবার কেন যায় এই মন ভরি।