ফুলের দোকানে সবগুলি ফুল নেড়ে, এলেম শূন্য হাতে
কোনটিতে তার নেই মোহিনী রং, আবেশ করা সুবাস
সবগুলি তার হার মেনেছে, আমার ঘরের একটি ফুলের কাছে।


হীরক দিয়ে সাজাবো তোমায়, পাইনি খুঁজে তেমন
তোমার চোখের তারায় দেখি যেমন হীরের ঝলক
মুক্তো যেমন হার মেনেছে নিজেই, তোমার হাসির কাছে।


মৌমাছিকে বলেছিলাম দিতে, বনের সেরা মধু
বছর শেষে শূন্য হাতে এলো যখন ফিরে
বুঝে গেছি, সকল মধু হার মেনেছে তোমার কাছে বধূ।


সকাল বেলায় সূর্য দেখি ম্লান মুখে আজ এলো
সেও বুঝি আজ হার মেনেছে তোমার আলোর কাছে
যে রশ্মিতে জীবন আমার সদাই ভরে রাখো।


রাতের বেলায় শয্যাখানি লজ্জা পেলো বড়
তোমার মতো পারেনি সে হতে তেমন কোমল
যেমন তোমার দুই বাহুতে আদর দিয়ে জড়াও।


এক রাত্রির স্বপ্নে আমি দেখেছিলাম তোমায়
আর এক মধুর স্বপ্ন তবু চেয়েছিলাম আমি
হাজার হাজার রাত্রি গেলো পারেনি তা দিতে।


সকল সুখই হার মেনেছে তোমার সুখের কাছে
যে সুখ আমায় ভাসিয়ে রাখে সূর্যাস্তের সাতরঙা রামধনুই
যে সুখ আমায় দেয় ভুলিয়ে কবে যে কোনদিন।


নিত্য যে দাও সুখের নীড়ে বুকের ভেতর সাহস ও সম্মান  
যতই কাছে আসি তোমার, ততই বাড়ে তোমার প্রতি টান
তাইতো জানি, আজ শুধু নয়, তুমি আমার নিত্য ভ্যালেন্টাইন।