ইচ্ছেগুলো তোমার চোখে, বড়শি ফেলা প্রেমের নিশান
ইচ্ছেগুলো অবিন্যস্ত চুলের খোঁপায় কাঁপন তোলা উষ্ণ চুমু,
সিক্ত ঠোঁটে মদির মোহ চোখের পাতায় দৃষ্টি ভরা হাজার তারা।


ইচ্ছেগুলো ঘনদীর্ঘ শ্বাস প্রশ্বাসের তালে তালে উছল হাসি
চরকা কাটা জয় কিত্তন, তোমার সাথে ইচ্ছেগুলো জেগে ওঠে
দৃষ্টি যখন রাখো তুমি আমার চোখে, অতি আপন এক পৃথিবী,
মুখোমুখি, জীবন মরণ, কাব্য করে নীরব ঠোঁটে বহুত ভাষা
পেলব শীতল অঙ্গে ভরা খোয়াব খেলায় জন্ম গ্রহণ করতে থাকে।


সাঁতার কাটে ইচ্ছেগুলো, ঘরকন্যা, নন্দরতি,
থুক্কু থুক্কু মান অভিমান, হাজার খেলা, ভাঙা গড়া,
তোমার আমার দূর ব্যবধান, স্বপ্ন ঘাতক
বিষম ব্যথায় জোড় বেজোড়ের বিনি সূতা ছেঁড়ে বাঁধে।


ইচ্ছেগুলো ভাত খায় না, পান খায় না,  
রাঙা ঠোঁটে চেতন ফেরা উছলে ওঠা নদীর জোয়ার থমকে দাঁড়ায়
ইচ্ছেগুলো তোমার আমার ভাঙে নদী, উদোম গায়ে
বৃষ্টি ভেজা কাকের মতো প্রহর গোনে, গজিয়ে ওঠে
ঢেউয়ের তালে নিত্য নতুন পলল তোলা ফসলী জমিন
সেই পললে তোমার খেয়া আমার খেয়ায়
নিবির ঘন নির্ভরতার রাজ্য গড়ে
পরস্পরের ইচ্ছেগুলো, উপ্ত করে এক জনমের ভালোবাসা
তোমার চোখে
ইচ্ছেগুলো
লুকিয়ে থাকে
      তাকিয়ে থাকি তোমার চোখে
তোমার চোখে ইচ্ছেগুলো, আমার জীবন।


     ০২/০৮/১৫