চক্ষু জুড়ে যা দেখিলাম
              তাহা হইল জগত উপাদান,
খোদার তাহা ভরিয়া দিছে
                  মানুষ তরে দিছে লেলিহান।


চক্ষু ভরে গগন দেখি
                বাতাস দেখি সৃষ্টি অবিরত,
সব সৃষ্টি রাখি দৃষ্টি নিজকে
                       ভাবি সৃষ্ট তার মতো।


ও শোকরিয়া ও শোকরিয়া
              ওহে খোদার করি লগ্ন ক্ষণ,
বনাল না যে পশুর মতো
               বনাল হাতে মানব রূপাতণ।


তোমার আগে কে এসছিলো কে
                 এসেছিল হাসিয়া এই বুকে,
কতোজনই অস্বীকার
            গিয়েছে করে এখন কোথা রুখে।


হাসি তামাশা সুখের ভরা
           এই জাগত পূর্ণ  কতো আছে,
স্বর্গ খুঁজি আমরা সবে স্বর্গ
                   খানি দেখার মেলা পাছে।
মানুষ পারে সৃষ্টি করা
            ধংস করা মানুষ নাই পারে,
ধংস শিলা সব দেখিছ
             মানুষ আছে ধংস ক্ষতি তরে।