জনমের কানে শুধায় বাজিত
প্রিয়বালা করি পান,
যুগে যুগে যারা বলিয়া গিয়াছে
বাণীর অম্ল গান।


চাঁদে কোল মায় ঘোমটা পরিয়া
বসে আছে চিরকায়,
গেরান লাগিলে চন্দ্র সূর্য
বেড়াবন গিলে খায়।


হাজারো জনমে শতো প্রবাদ
চলিত মুখের মুখো,
ইহাই সত্য দৃঢ় বিশ্বাসে
দাঁড়িয়ে বলিত রুখো।


বিশ্বাস তার শোনার কথার
এতো মজবুত ছিল।
ভাঙিতো না কভু শেষের কালেও
শোনাত নাতিন দিল।


কুকুর লেজটা সোজাই হবেনা
যত না চাপিয়া রাখো,
বারো বছরও কাটিয়া গেলেও
ব্যাঁকায় আকার হ্যেঁগো।


সদ্য তোমার ভালো আচরণ
যদিও করিতে যাও,
সুযোগ বুঝিয়া ঘেউ করে সেই
কামড়ে দিবেই হ্যাঁও।


বৈশাখ মাসের আমের বিচি টি
খায় যদি বাপ মরে,
সন্ধ্যা বেলার চেরাক না দেয়
অলক্ষ্মী দশা ঘরে।


মুখে মুখে তারা মানছে নীতির
আত্মাই ছিল নত,
ভালো ছিল যতো ওসব দিনেক
দেহে নাই ছিলো ক্ষত।


জনমের তরে জনম বাজিত
বিশ্বাসে সমীয়ান,
আকুলিবিকুলি তাইতো থাকিত
বাণী চির অম্লান।