কতটুকু দুরে এই আছো তুমি কতো টুক পথ
পেড়ুলেই আমি আমি হয়ে যাব তোমার।।
সেই কবে থেকে,পথ চেয়ে আছি,
কতটুকু পথ আগালে যে আমি
তোমাকে পারব ছুঁইতে।


সময় পাড়িত তোমার পথটি অপেক্ষার ঐ
পথ গুনে আমি গুনে আজো আছি একেলা,


অপেক্ষায়তা নিজস্ব তার তোমার আমার
যাওয়া আসার পথ ঠিকানায় দাড়িয়ে,
ওই পথ গুনে আমি রাত ঘিরে
তারাদের মেলা একবার আমি গুনে শেষ করে ফেলেছি।


তবুও তোমার অপেক্ষার কী বেলা আজও কী
--এক এক করে ফুরালো আমার নাহ
আমি তত দিন ওই রবো চেয়ে আমার দুচোখ
দেখে যাবে সব জলে মিটিমিটি আলো।


ব্যস্ত সড়কে, ঠাঁই দাঁড়িয়ে যে, ভাবছি তোমাকে
খুব আনমনে' হঠাত।।
আমি কখনো ই সেখানেও আমি দেখতে পাইছি
তার মানে খুব যাওয়া আসার দৃশ্য।


বড্ড হারিয়ে তোমাকে আমই আবার খুঁজতে
বেড়িয়েছি আমি, কতটা সহজ মনে!
সেখান একদা বিশ্বাস ভাঙা ফাটল ধরছে
কোন এক কালে, আমিই ভাঙতে দেই নাই, জড়া তাক।


তোমার জন্য প্রতি দিন ধরে তৈরি করি আমি
নিজের মতন, নতুন একটি দুয়ার,
সেখানে দাঁড়িয়ে তোমার জন্য অপেক্ষা করি
কাউকে বুঝতে দেই না এমন ব্যক্ত।


কতটুকু দুরে এই তুমি আছ
কতটুকু পথ পেরুলে আমি আমি পেয়ে যাব তোমায়,
বড্ড বিকেল রাস্তায় পাশ দাঁড়িয়ে ছিলাম!!
তোমার পরশ ছোঁয়া যাবে, কভু ছাড়িয়ে।


বাজিমাত এক ফুটবলের দলে ঠাই ঠাঁই করে
মিশে গিয়া আমি তোমাকে খুঁজেছি একলা,
কভু নির্জন একা কি একলা কোনো গাছতলা
বসে আমি খুব ভেবেছিলাম ঐ তোমাকে।


তুমি কাছাকাছি চলে এসেছিলে বাকরুদ্ধতা
অনেক কথার মুখটি চেপেই বসছে,
আমি অত দুর ছিলাম তোমার
কাছে পাওয়ার ব্যাকুলতা ঘিরে অপেক্ষও দিন গুনেছি।


এতো কাছাকাছি চলেই এলাম আজ মনে হলো অনেক দুরেই তোমার আমার স্থান,
অথবা আমার থেকে খুব দুরে তোমার পথটি
আকাশ সমান অথচ যতটা তফাত।