এই পথ পড়ে আছে মানুষটি নাই
এই আকাশ টা ভেসে আছে ওই দূর
বাতাস বইছে জুড়ে বাংলায় ধর ঠাঁই
ঠিক আছে বনমাঠ বহমান ফুর
আমার মায়ের ভাসা ছবিটাই মিছা,
এই উঠুনের গায় ফুলগাছ ফোঁটা
এই কোনো গল্প নয় নয় এক কিচ্ছা।


মুখপড়া জলপানি খেত লোকদল,
টাকা বিনা জার ফুক দূর ভাগা তল।
হাসি ভারা মুখতার ভরিয়া গলায়
তার কাছে ছুটে আসা যত দলবল।
ওদের কেউই খুব মনের দেখিনি,
আপশোসে দিয়ে মুখ ভুলে ঠাঁইভার,
ওরা সব ভুলে গেছে আমি কি ভুলেছি
এই বাংলার মাঠের দেখিতেছি তার।


জলন্ত ছবি ভাসিয়া উঠিছে নয়ন
ওই কথাটি বিশ্বাস করেনা নিজের,
মনে হয় তার মৃত্যু হয়নি কাছেই
সে নাকি লুকিয়ে আছে কোনবা বনের।
একদা আমি খুঁজেছি পথ ঘাট মাঠ,
রয়েছে চুপ তাহারা স্রষ্টার নথয়,
সবুজের বন মাঠ বলেছে আমারে
স্রষ্টার নতো হুকুম অতিব বিধায়।


আমি ভাবি মায় বুঝি আজ হারায়নি,
এই পথ মাঠ দৃশ্য কোথা বাড়ায়নি,
মনে হয় এই তিনি আজানের ডাক
শুনিনি তাহার কানে জাগিবে এখুনি।
মনে হয় তিনি ওই সামনের রোজা
দিন গনে ইবাদাতের কদিন পারায়।