এই দেশ আছে কতোটুকু আছে নিরাপদ চলা চল??,
কতটুকু আছে চিন্তে বদল মানসিক রদবদল।


মা বোন সঙ্গী একটি পথের মুক্তাঞ্চলে চলি,
আছে কোথা বেশ শুদ্ধতা পথ ঘাট মাঠ অলিগলি।


কুপ্রভাবতা  চলাচলে পথ ব্যাঘাতের মুখ মাখে
একদল লোক শকুনির চোখ উঁকি মেরে চেয়ে থাকে
এই দেশ আছে এখনো কতটা  নিরাপদ মনে বাঁচা
শকুনির ভয়  ঢর ভয় উঠে লোকে বলে কহে হাচা।


আমাদের দেশে যেকোনো দেহের দগ্ধ চৌত্র পোড়া,,
রোদ্র পুড়িয়ে রোদ ছাড়া রটে রোদ্র মাটির খরা।


ঘর থেকে যাই চোখ জুড়ে পড়ে দোরে শকুনির নজর,
কোথায় হাটিব দগ্ধ কাঁপিছে আমাদের দেহ পাজর।


এই দেশ গেছে ভরাডুবি হলো সংকটে মেলাহাটি
সোনালী দিনের সুখ দিন যেন তুচ্ছতা পরিমাটি।
আহারে মানুষ কীসে ঠোঁট মুখ জিব্বে জাগাও লোভ
   তোর মা বোন কি? আছে জানা মুখ মানুষের মাঝে ক্ষোভ।


    এই দেশ হলো সবুজ শ্যামলী স্বর্গ ছায়ার মতন,
যথা আমি যাই পরশ ভুলাই দেশের রানীর সমান।
তারপর যেন চলাচল ঠেকে ঠেকে খুব ঢর ভীতি।
     চলিতে পথের অনেক মিলেছে শকুনির হাতাহাতি।


অপরের বউ রাস্তা ঘাটের  কেনো ওরা টেরে চায়,
কু নজরে বলে মুর্খ যাহারা বাজে কাঁথা ভেঙে নাও।
হায়রে মানুষ কুঠার আঘাত লজ্জা পুড়লে তোরা,
মুক্তি আনিও আদর্শ যেহু উথাল মানব গোড়া ।


    সরল মানুষ চলতে দেখিলে আসকারা করে তাতে,
কী তামাশা দেখি বিবেকের খেলা আজকাল পথ খাতে।
সরল মানুষ দেখিল ওহারা মুখ থেকে কেড়ে নাও,
ওসব তোমারা খোদার দোহাই এইসব ছেড়ে দাও।


  বদ অভ্যাসির দিন দিন মুখ বাঙালির মুখে জুড়ে,
মানুষের পথে নারী জাতি খুব বাঁধা হয়ে চলা ঘুড়ে।
ধনীরা যাচ্ছে এমন চিন্তে এদেশ ছাড়িয়া সকল,
গরীব মরছে এই দেশে ধুকে অবিচারি পায় শিকল।