একা থাকি একার মাঝামাঝি!!
থাকতে থাকতে এক একাকার সাজি!!


তার পুঁজি টুক নিয়েই বুকের পাশে
সন্ন্যাসী দের মতো হৃদয় হর্ষে।
এক!! কবিতা বানায় ফেলি আমি,
লেখাটির নাম দিলাম একটি বদনাম।


এ কাকে দুই? খুঁজে পেলাম না!!
চলতি পথে কলে চাইছি বা !!
সেই নিঃসঙ্গ আমায় হতাশ করে?
নয়তো আমার অবুঝ মনের ঘরে।


সেদিন আমি হবো একজন কবি
হাজার লোকে বলবে তুমি কবি!!
লেখনির সেই কারুকার্য ফলে!!
মানুষ কাঁদবে আপ্লুত আবেগ ছলে।
সেইতর তোমার সহজ ব্যাকুলতা।
আমার লেখায় থাকবে সেসব কথা।


দুইয়ের মাঝে এক একা কি পদ!!
দেখি আমি আ চড়ে নাড়ার মত।
আমি তবু একা থেকে যাই
তুমি হীনা এ জীবনটা ঠাই।


বৃষ্টি ঝরায় আমি ভাবছি কান্না,
বুঝছি সকল পদ্য বিরাগ পান্না।
ছুটছি আমি বিশ্বাস করার জল্প!!
উপকরণ বোঝাই একটি শিল্প।


সেদিন আমি কবি বলব নাহ্,
তোমার হৃদয় অবহেলা টাহ।
আমার মাঝে অথবা লেখার বর্ষ,
শুধুই ভাসবে ভাসবে শুধু দৃশ্য।
আমি তোমায় খুঁজে পেলাম নাহি,
এই অভিমান সুখ বিরহ বহি।