আজকের খাতায় একটি অংশে
লেখার পাতায় চলছে একোই ধরন,
হয়তো পাঠে সারাদিনই চলে বটে
গান কবিতার স্বরন।
আজকে তাহার বিদায় দিনে কাঁদছে
মানুষ  কাঁদছে অনুর সিক্ত,
প্রতি কদম চলার পথে চলতে শেখায়
অনু করণ  হৃদয় মনস ব্যক্ত।


তাহার  সকল সৃষ্টি জগত  সুন্দর
জীবন হেসছে মানব ঠাঁই,
আজকে তাহার চলে যাওয়া
তিলে তিলে বেদনাকে পাই।


গান কবিতায় পাঠের সুরে কন্ঠ
কাপায় ময়দান,
বিদ্রোহী আজ আজ বিদ্রোহী
প্রেমের কবি সাম্য কবির জয়গান।


এসে ছিলে তুমি তখন ভেবেছ কে
সুদুর অগ্র ধরন,
জগত তুমি হাসিয়ে যে করেছো তার
ধনী গরিব মানুষের যে কবি হলে যার,


দুঃখু মিয়া নামের পাশে মানুষের
তর করছে সুধীর বরন,


আজ অনুভব করি আমরা
নতুন জয়ের সভ্য মিছিল ভাসন,
আর কি হবে তোমার মতোন
তোমার স্থান আর পাইবেনা আসন।


তুমি কবি চির দিনেই সবার কবি
যুগের যুগে শেষ ভাষনে থকবে উচ্চ নাম,


আজকে তোমায় হারিয়ে মোরা অশ্রু বেদন
গভীর শ্রদ্ধা নম্র বিনয় জানাই তোমায় সম্মান।


আজ শিয়োরে মানবতার পাহাড় আকাশ
ছেদিয়া তার উঠছে গর্জে  সপ্তরন,
হাজার লক্ষ ফুলের রেলি
লক্ষ্য প্রেমিক সমাধিতে স্বরন।
নজরুল তুমি মানুষ তুমি মানুষ নামে
দেবতা,
চিরদিনই বেচে তুমি আছো এই যে
বারোতা।