আমৃত্যু কারো কাছে মাথা নিচু করে বেঁচে থাকাই কী জীবন ?
নিঃশ্বাসে- প্রশ্বাসে সর্বদা এ প্রশ্ন ই ঘোরে বুকের ভেতর,
যেখানে আজো নক্ষত্রের মতো হৃদয়, আর হৃদয় পাখির
মতো; খেলা করে, বাসা বাঁধে আর বাঁচে অনুরক্ত চিরন্তন।
নাকি জেনেছো;তোমার হৃদয় নিঃসঙ্গ কোনার্কের মতন,
তাই দুই চোখে অস্ফুটে দিয়েছো উত্তর- এ প্রশ্ন অবান্তর,
নাকি শঙ্খচিলের বেশে তোমার হৃদয়, সমুদ্রের ঢেউয়ের-
মতো আকাশে মেশে এক অনৈসর্গিক অন্বেষণে​ রাত্রি দিন,


জানি, জানি রুক্মীনীর মতো তোমারো অন্বিষ্ট ছিলো একদিন,
উষষী লাবন‍্যর ভয় শূণ্য সঙ্গীত আর মৈত্রী মূখর-
বাতাস,তবু কেন সেই চোখ; ঐ প্রশ্নে নিরুত্তর যেন
রাত্রির চক্রবাক, কিম্বা ক্ষয়িষ্ণু আরাবল্লীর স্নায়ু -ঝঙ্কিত
নিস্তব্ধতা, আর বল্লে বলবে হেসে, কেন কোথায় যাবে তুমি
আমরা স্তনান্তর তোমার পটভূমি- মানি অভ‍্যাসবশত
।।