=
আনন্দে'র বার্তা আপন-কে, বর্ণনে'র অধিকার- সব প্রাণী'রই বিদ্যমান৷
বিভোর শেয়ালে'র মুখ তখন'ই নাচে, গা জলা সিঁড়ি-তে৷
খর স্রোতা নদী'র উচ্ছ্বাস, প্রাণী'র উচ্ছ্বাস-বক্তব্য টিপ্পনী'র উপর লেপন আবরণে,
অভিঘাত ডেকে আনে, দুর্গতি জমাট ক্ষিপ্রতায়৷
মানসিক স্থুলতা'র বন্দরে আশ্রয়- রাতে'র শেষে,  
শেয়াল দালালে'র নিকৃষ্ট অবদানে৷
জানি- রোনাজারি-তে পটিয়েছে, খাঁচায় বন্দি করা'র ফন্দি৷
তাই, দুই মাসে'র অ-বারীত ঝড় দেয়-নি, এক রত্তি স্বস্তি৷
এর মধ্যে উর্ধ্ব-গামী প্রসারণে ঝড়ে'র বুক ঘূর্ণি-তে, রূপান্তরে'র বাণী৷
ঘুমন্ত পৃথিবী-কে নগ্ন-মূর্তি ব্যাঙে'র রূপে এসে বলে,
ঢেউ তুলবেন, স্নানে'র বন্দরে?
অবাক পৃথিবী স্তম্ভি-তে, শুধু- বলে, না৷
প্রতি-উত্তরে- বিপরীতে বলবেন, কিন্তু৷
তারপর- লম্প-গতি তার গর্ত গন্তব্য অভিমুখে,
আর- আমি স্থির চিত্রে নির্বিকার চেয়ে থাকি, জীবনে'র দিকে৷
ভাবনায় বিভ্রমে ভুগি- বিকৃত মননে'র এতো সরল স্বগতোক্তি-কে নিয়ে৷৷
=
রচনা-দিনঃ ২০১২ এর ১৩ই ডিসেম্বর৷
=