=
কালে'র মোর্চা ভাঙ্গতে, কালে'র প্রতিতি হতে, হয়৷
সবিনয় নিবেদন- সেখানে, গ্রাহ্য নয়৷
সু-খবর বার্তা, তেমন- সু-খবর নয়, হয়-তো৷
আলো আঁধারি'র মিশেল বর্ণচ্ছটায়৷
মেনে নেয়া'র ফিরিস্তি- থমকে দাঁড়ায়,
অবচেতনে'র ধোঁয়াটে নির্লিপ্ততায়৷
প্রথমে অট্টালিকা'র সিঁড়ি বেয়ে বেয়ে,
পথিক ছোটে চূড়ান্ত সীমা'র-
শেষ পা রাখা'র ভিত্তি-তে,
সাথে স্বীকৃতি'র সীমা প্রাচীর-
ব্যাপৃতে'র কানকোয়- গড়ায়৷
স্বাদে'র তৃপ্তি- তেতো-তে নামায়৷
তবু-
প্রকৃতি'র সভা- আলোচনা'র সূত্রপাত ঘটায়৷
এভাবে'ই প্র-গতি, স্ব-গতি'র পথে, পা বাড়ায়৷
যেভাবে কফি'র তিক্ততা-কে,
মিষ্টতা'র রূপান্তরে ভরিয়ে তোলে,
চিনি'র অবি-মিশ্রতায়৷
কালে'র মোর্চা- অতিক্রমে,
আমাদের কালে'র প্রতিভূ প্রতিকি লালন করতে হয়৷
তবে'ই না, পৃথিবী'র আবিস্কারে'র সঞ্জীবনী সুধা- বিস্তৃতি পায়৷
আর- কাল, মহা-কালে'র পাঁচিলে, অন্তরীণ হয়৷৷
=
রচনা-কালঃ ০৭/০৯/২০১২ইং
=
মার্জিত রূপ- সংস্করণে৷
=