=
চার-পাশে দেখা যায়, কেবল- মানুষ বাড়ে,
ঘর বাধে, ঘর ভাঙ্গে, গ্রাম শহরে'র মধ্যিখানে৷
পতনে'র সুর বাজে, মাঝে মাঝে বিহগলে৷
হাজার লক্ষ কোটি বছর- বেঁচে আছে, মানুষে-রা পৃথিবী-তে৷
মানুষে'র মূর্তি এখন- কথা বলা শুরু করেছে,
তবু- জীবন প্রকৃতি সমাজ বি-মূর্ত-কে, কাছে টেনে রাখে৷
ঘুণে ধরা হৃদয়ে, প্রকৃত নদী'র প্রবাহমানতা-কে থমকে, এক আ-মূল অ-পরিবর্তনে৷
পৃথিবী'র বাক-শুদ্ধতা-কে, অ-মর অক্ষর বিমনতায়- স্বীকৃতি-তে, কটাক্ষ করে৷
এ-রকম স্থবিরতা ছাড়া- কিছু'ই মেলে-না, আজ- পৃথিবী'র হৃদয়ে৷
তবুও অ-পদার্থ মানুষে'র ক্ষুদ্র-জ্ঞান সঠিকতা'র অ-বিরাম যান-বাহনে চড়ে, পৃথিবী'র চরাচরে,
পরিচিত পৃথিবী'র সত্য পান্ডিত্যে, স্নিগ্ধ পরিবেশে- এই সততা, প্রেম, মেধা, যুক্তি, উদাহরণ আর- পবিত্র অন্তরে'র এই বাঞ্ছিত উপদেশ৷৷
=
রচনা-কালঃ ১২/০৬/২০১২ইং
=
মার্জিত রূপায়ন৷
=