=
শাসন করা, আর- মায়া দেখানো-
এক মানুষে'রই অধিকার৷
তথাস্তু- কেউ শাসন চায়-না৷
মায়ায় আচ্ছন্ন হতে'ই ভালোবাসে, চিরো-দিন৷
দুই-টি ধারা'র পৃথিবী'র গতি৷
এই নিগাঢ় বাস্তবতা- কারো'র পক্ষে'ই,
মেনে নেয়া- স্বভাব সম্প্রীতি হয়ে, ওঠে-না৷
এই এক-তরফা মাদকতা- মানুষ-কে,
পরি-শুদ্ধ হয়ে উঠতে, দেয়-না!
কারণ-
মানুষ মানতে'ই চায়-না, যে-
সুখ অনুভূতি দুঃখে'র পরন্তে, দূর্গতি!
বুঝতে'ই চায়-না, কখনো-
দুঃখে'র স্ব-গতি আছে, বোলে'ই
সুখে'র এতো- আকুতি৷
মানুষ আপন ভাবনায়- নিবিষ্ট হয়ে থাকে, বোলে-
সহযোগী প্রাণী-কূলে'র দিকে,
দৃষ্টি-গোচর করে-না!
ভোগে'র এই রেখা-মার নীতি'ই,
জীবে'র বিলুপ্তি'র পথ- সুগম করে, যুগে যুগে৷
এই রেখাপাত মনে'র ঘরে'র বদ্ধ-তালা-
খুলতে খুলতে, হারানো'র বাদ্য বেজে ওঠে, হাহাকারে৷
মানুষ এতো-টুকু কেনো- ভাবে-না,
শাসন করা, আর- মায়ায় বিভোর হওয়া,
শুধু-মাত্র নিজেদের মধ্যে'ই সীমাবদ্ধ রাখা-
সমীচীন নয়৷
কারণ-
সৃষ্টি-কে মেনে'ই, সৃষ্টি'র শ্রেষ্ঠত্ব৷
উদারতা' সেখানে- অবশ্য'ই কর্তব্য, বাঞ্ছনীয়৷৷
=
রচনা-কালঃ ৩০/১১/২০১২ইং
=
মার্জিত রূপ- সংস্করণে৷
==