না বোঝার ভান করে,
অসম্ভব বোকা হয়ে
আমি পথ চলছি খ-মধ্য লাভের আশায়।
নক্ষত্র মেঘের মতো জমছি,
ফের লাভার মতো উদগীরণ করছি
নিজেকে নিজের মাঝে!
আমার ক্লান্ত লাগে.....
কত শত নয়ন ছিল দুনয়নের মাঝে,
কত সহস্র ডানা ছিল উড়বার....
কত লক্ষ ইচ্ছা পুষেছিল মন!
আজ উচাটন হয়েই স্বান্তনা নিতে হয়।
আজ আর আমি কবিতা নিয়ে ভাবিনা,
শব্দের গায়ে কত ফোটা রঙ চড়ালে তাকে
মোনালিসার অক্ষিগোলক বানানো যায়,
আর খোঁজ নিইনা।
আমি ভিঞ্চি নই, মেনে নিয়েছি।
আমি সুলতান নই, পাবলো পিকাসো নই,
সালভাদর ডালিকে ভেবে আমার আর কোন উপকার আছে বলে মনে করিনা।
শব্দের ঠোঁটে তাই তুলির চুমু এখন অস্পৃশ্য।
কোথাও কেউ নেই !
ছিলনা কোনদিন.......।
না বোঝার ভান করে
আমি ফাটল গুলোকে রেখাচিত্র বলি।
পথ চলছি খ-মধ্য পাবার আশায়।
মীনের চক্ষুভেদ করছি নিরবতায় কাঁটায়।
আমার ইঞ্চি ইঞ্চি তে দোষ,
মেনে নিয়েছি।
শুধু মানিয়ে নিতে পারলেও কত কিছু হয়!