যেদিন জানলাম ওরা কেউ চায় না আমায় -
অবাক হই নি!
কিন্তু,যখন জানলাম তুইও
বিশ্বাস হয় নি মা!
শুনেছি, পৃথিবীটা নাকি অপার সৌন্দর্যের ভান্ডার,
আমারও যে সাধ বড়ো -
নয়ন মেলে প্রাণ ভরে দেখব
আলোয় মোড়া সাধের জগতটাকে,
চেটেপুটে চেখে নেব জীবনের স্বাদটুকু!
আমিও যে ব্যথা পাই মা
নীরব কান্নায় ভাসি আমিও...!
আমার ছোট্ট হৃদয়ও যে স্পন্দিত হয় প্রাণস্পন্দনে,
তোর সমস্ত অনুভূতি যে আমারও!
এসব তো তোর অজানা নয়
তবে কেন......!
স্বার্থান্বেষী অন্ধ মানবতার হাতে প্রতিদিন
কতো যে আমি চুপিসারে হই খুন,
হ্যাঁ,দোষ তো আমাদের আছেই বটে
আমরা যে কন্যাভ্রূণ!
অথচ ভেবে দেখ -
জগতের ধারক ও বাহক ভবিষ্যতের আমরাই,
পারবি কি রাখতে ধরে তোদের সাধের জগত
আমাদের ছাড়া......?
তা সে যাই হোক,একটা অনুরোধ তোকে
তিলে তিলে চির ঘুমে পাঠাস না আমায়,
তাতে যে বড়োই কষ্ট মা!
তার চেয়ে বরং এক লহমায়
ছিন্নভিন্ন করে দিস আমার জীবন বৃত্তান্ত,
জীবনের প্রথম ও শেষ ঠিকানা  
আঁধার....এবং আঁধার!


ওদের বলে লাভ নেই জানি
তাই তোকেই বলি মা -
অনুভবের শেষ সীমায় দাঁড়িয়ে
আর একটিবার আমার ছুঁয়ে দেখ না মা...
হয়তো বা অনুভবে আছি
আমি আর আমার ব্যথা!


না,কোনো দয়া বা করুণা নয়
যদি গহীন অন্তরের ভালোবাসা দিয়ে
গ্রহণ করতে পারিস আমায়,
ভেবে দেখিস আরো একবার......!