ধরো কোন এক ভোরে হঠাৎ ঘুম ভেঙে
জানালার পর্দা সরিয়েই আবিষ্কার করলে-
আকাশটা নেই!


তুমি কি মুহূর্তেই মহাশূন্যে নভোচারীর মতো
ওজনহীন ভেসে যেতে থাকবে?
আপাদমস্তক উল্টে যাবে তোমার পৃথিবী?
অজান্তেই ধপাস বসে পড়বে মাটিতে?
না কি কিংকর্তব্যবিমূঢ় দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে
কিংবা শুয়ে শুয়ে ভাববে-
অসম্ভব, এ কী করে হয়!
চোখ কচলে আবারো তাকাবে-
স্বপ্ন দেখছো না তো?
না কি 'ধ্যাত ছাই আজগুবি চিন্তা',
যেন পর্দার আড়ালে আকাশ আছে কি নেই
তাতে তোমার কী বলে
পর্দাটা টেনে দিয়ে আবারো ঘুমোতে যাবে?


আকাশবিহীন পৃথিবী
তুমি ভাবতেই পারো না,
আকাশের চিরন্তন ছায়ায়
অন্তহীন মায়ায়
কেটেছে জীবন।
আকাশের আলিঙ্গনে
সুখ-দুঃখের সম্মিলনে
বেঁধেছো এ ঘর তোমার
পরম মমতায়।
মন ও মননে
স্বপ্নের বুননে
গড়েছ আপন ভূবন
আবেগে ও আবেশে।


নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গের মতো আকাশবিহীন তুমি
কৃস্টাল গ্লাসের মত খানখান ভেঙ্গে যাবে-
তোমার আকাশ কি তা জানে?


আকাশ কি জানে
তুমি আছো বলেই সে আকাশ,
তোমার আকাশ?


আকাশ কি জানে
তোমার ভালোবাসার সোদা মাটির গভীরে গ্রোথিত
আকাশের গোপন শিকড়?
তোমার রূপ-রস-গন্ধে-জাত
পত্রপল্লবে বিকশিত অপরূপ আকাশ!
আকাশ কি জানে
কিভাবে তোমার প্রাণসঞ্চারী প্রণয়
আপন অস্তিত্বের নির্যাসে সিক্ত
বিন্দু বিন্দু জল, মাটি ও বায়ু
প্রতিমূহুর্তের নিরব তপস্যায়
গড়ে চলেছে আকাশের সুনীল অবয়ব?


আকাশ কি জানে
তোমার ভালোবাসা বিনিসুতোর বাঁধনে
জড়িয়ে রেখেছে বলেই সে আকাশ?


তুমিহীন আকাশ -
হোক সে মহাকাশ-
কেবলই শূন্য, মহাশূন্য!
-----------------------------
# এম সানাউল হক
০৩ এপ্রিল ২০১৮, ঢাকা
ওয়েবপেইজ: [email protected]