এই প্রহরে'ই আমার অস্ত যাবে
মহাকালে'র শেষ প্রারম্ভে শরতের স্নিগ্ধ বিকেল
নীল আকাশে'র সাদা মেঘের খেলায় কাঁদবো
প্রজাপতির ডানায় আলতো ছোঁয়া দিয়ে যাবো
অনন্ত হয়ে রইবো কালের আবর্তে
নীল শাড়ি পড়ে
মহীয়সী নারীর বেশে, আমার বেলা শেষে।


থমকে যাবে সব কিছু, অন্ধকারে'র মিছিল আসবে ধেয়ে
ক্লান্ত নাবিকের মত স্বজনের অহেতুক ছুটোছুটি অপলক চেয়ে
রোমান্টিকতা'র আবহ স্মৃতির পাতাকে উল্টাবে শুধু সাদা'য়
সরল রেখায় আঁকাবাঁকা চিহ্ন খুঁজে পাবো যে তখন
এই প্রহরে আমার অস্ত যে যাবে


নদীর কল্লোলে আর শব্দ হবে না বৈঠা বারী দিয়ে
পোড়া তেলে বিষিয়ে যে গেছে, স্বচ্ছ ডালিমের মত নেই
আমার কণ্ঠে আর কোকিল সুর আসবে না জানি
তবুও অপেক্ষার পালাবদল হবে বহুযুগ পর
সর্প বিষে হবে শরবতে'র মিঠা স্বাদ!
শালীনতা হবে তখন বদলানো সমাজের অপবাদ
অস্ত যাবে যে আমার, গোধূলির ক্ষণে
লাবণ্যময়ী জ্যোৎস্না শুধু রবে অবাক দৃষ্টিতে।


( আগামীকাল রোজ শুক্রবার নারায়ণগঞ্জ চাষারা'য় কবিদের মিলন মেলা আয়োজনের চেষ্টা করতেছি, বিকাল ৩ টা থেকে শহীদ মিনারে চলবে এই আয়োজন। আপনাদের উপস্থিতি কামনা করছি। আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য ০১৭০৭৮১১৫৪২।
এই আয়োজনে কবীর হুমায়ূন স্যার এর থাকার সম্ভাবনা আছে )