বল তো বাবা অমর একু‌শ মা‌নে বুঝায় কী ?
ভাষার জন্য জীবন দি‌য়ে‌ শহীদ  হ‌য়ে‌ছে যারা ।
রক্ত দি‌য়ে রাজপথ র‌ঙ্গিন ক‌রে‌ছে যারা।
জীবন দা‌নে মা‌য়ের ভাষার অ‌ধিকার রে‌খে‌ছে বা‌কি সেই দিন‌টি অমর একুশ। তাই তো বুঝায়, না‌কি?


‌ঠিক ব‌লে‌ছো বাবা তু‌মি পে‌য়ে‌ছো দ‌শে দশ
এবার বল বাংলার বু‌কে ‌কেন এত ধস ?
অাচর‌নে নই  বাঙ্গালী
       হাট‌ছি ভুল প‌থে
দু একটি ইং‌লিশ বল‌লেই
       অাধু‌নিক ভা‌বে লো‌কে।


বল‌তো বাবা বাংলা ভাষায় যেভা‌বে হাঁ‌সি কাঁদি
‌যেভা‌বে অামরা গা‌য়ের প‌থে অাঁকা বাঁকা হা‌টি
‌সেই  গাঁ‌য়ে‌তে, সেই  হাঁ‌সি‌তে  অা‌ছে  কত সুখ
তা কি ওরা বুঝ‌তে পারে যতসব মূর্খ‌লোক।


‌বাবা ভা‌বে বু‌ড়ি অামার অ‌নেক হ‌য়ে‌ছে পাকা
অমর একুশ সযত‌নে তার হৃদ‌য়ে রাখা ।
তবু একট‌ু দে‌খে নি‌তে এবার তা‌কে শুধায়
বল‌তো মা ,ভাষা সৈ‌নিক বল‌তে কি বুঝায় ?


ভাষার জন্য যুদ্ধ ক‌রে দি‌য়ে‌ছে জীবন যারা
অামার ম‌তে ভাষা সৈ‌নিক হ‌তে পা‌রে তারা।


মুচ‌কি হে‌সে বাবা বলল ,
সৈ‌নিক বল‌লেই  যুদ্ধ বু‌ঝ
‌নেই কি  অা‌বে‌গের দাম ?
মা‌কে ওরা দি‌য়ে গে‌ছে
ভ‌ক্তি,  সম্মান ।


যারা বু‌ঝে না মা‌য়ের ব্যাঁথা , অা‌বেগ, ভা‌লোবাসা
তা‌দের কা‌ছে কি‌বা মূ‌ল্য পা‌বে অামার ভাষা ।
তা‌দের জন্য বাংলার বু‌কে নে‌মে এ‌লো ধস।
তা‌দের জন্য শূন্য রে‌খো , নয়‌তো দ‌শে দশ ।


তারাই শ্রেষ্ঠ সন্তান , তারাই ভাষা সৈ‌নিক
ভা‌লো‌বে‌সে দুহাত তু‌লে মুনাজত কর  দৈ‌নিক।
‌জীবন দি‌য়ে বা‌চি‌য়ে রাখ‌লো মাতৃভাষার পরশ।
তা‌দের জন্য অারও বে‌শি , নয়‌তো দ‌শে দশ।