হে পৃথিবীর কবি,
বিংশ শত্বাদীর শ্রেষ্ঠ তুমি
কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ
মনে আজ তোমারে
করিনু স্মরণ
আমি একজন
লহ হে, লহ মোর
সহস্র প্রণাম
তোমারি যে জ্ঞান
আমি লভিয়াছি অন্তরে
দুঃখে দুঃখে
অভিমান অনুরাগে
আন্ধারের ভ্রুকটি ছিঁড়ে
মহাবিশ্বের জাগরিত
ভাস্বরময়ে
তুমি কালের বন্ধু
সময়ের দিকে দিকে
তুমি শৈশবের উচ্ছাস
যৌবনের প্রেম
তুমি মধ্যেবিত্তের
নিশাচর রজনীর অকুণ্ঠতা
তুমি কোলাহলে তুমি ক্রন্দনে
তুমি ভয়ে তুমি বিপদে
তুমি পরম সত্যে
জীবনের করুন উপলব্ধি
তুমি বেদনার ইতিহাস
নিরাশার আশা
তুমি দৈনন্দিনের রুচি
তুমি প্রতিবাদের ভাষা
যুগ যুগ ধরে হেথা
এ মহাবিশ্ব যেথা
ছুটে চলে অবিরত
আমিও নহি ক্ষুদ্র
প্রণয়ের ডানা মেলে
তোমাকে পায়
আবেগের প্রতি ক্ষনে
মনের গভীরে
মানুষের মনে দীপ্তি আছে
তাই প্রতিদিনকার
চন্দ্র সূর্য এতো মধুর হয় ।।