মা তোর মুখের ভাষায় বলছি মনের কথা,
তোর ভাষাতেই সূর্য হাসে
তোর ভাষাতেই জোছনা ভাসে,
প্রাণের সকল কথাই মাগো তোর ভাষাতে গাঁথা!
মা তোর মুখের ভাষায় খুঁজে বেড়াই প্রাণের আকুলতা।


কি মধুর তোর কথা মা, কেমনে বুঝাই বল?
এ বুলি যতোই শুনি তোর বুলি মা প্রাণে যে দেয় দোল,
এ ভাষায় পরশ বুলায় মা তোর গায়ের সুগন্ধী আঁচল।
তোরে মা কেমনে বুঝাই বল?


মা তোর মুখের ভাষা কাড়বে কে বল মোরে?
কে কোন আঘাত করবে মা বল তোরে।
যতো তোর বিদ্রোহী সব দামাল ছেলের দল
আছে মা, ভয় কিসে তোর বল।


এ দেহে থাকতে মা প্রাণ চিন্তা যে নাই তোর,
সকল বাঁধার বাঁধন টুটে
তোর কাছে মা আসবো ছুটে,
আঘাতে আনবো দেখিস ক্ষুব্ধ তুমুল ঝড়।
ছেলে তোর রুদ্র মাগো, ভীষণ ভয়ংকর।


মাগো তোর চিন্তা কোন নাই,
আমি তোর দামাল ছেলে, তোর
চরণে একটু মা দিস ঠাঁই।


(রচনাকালঃ ২১ ফেব্রুয়ারী ২০০৮ ইং)