কংসাবতী-সাথে আমি কত অন্তরঙ্গ
কৈশোর আর যৌবনে আনন্দ অপার
গ্রীষ্মকালে ধু-ধু বালি শীর্ণ ধারা তার।
হারিয়ে গেছে জৌলুস হ’লো স্বপ্নভঙ্গ
উদ্দামতা বর্ষাকালে হেরি রূপ রঙ্গ।
স্বমহিমায় বাঁচুক এ দায়িত্ব কার !
প্রকৃতি সবার কাছে সৌন্দর্য-আধার
যথেচ্ছাচারের ফলে হচ্ছে হানি অঙ্গ।


জ্যোৎস্নারাতে নদী-বুকে লক্ষ তারা জ্বলে
নুড়ি রয় প্রতীক্ষায় কবে সে গড়াবে
সাঁকো দিয়ে পারাপার নৌকা নাহি চলে
ঠুং ঠাং আওয়াজ তুলে হৃদয় ভরাবে ।
বিকেল হলেই আসি নদীর আহ্বানে
রুমঝুম রুমঝুম শব্দ আসে কানে।