চরম দারিদ্র্য
অজিত কুমার কর


লেপ-কাঁথা নেই চাদরও নেই একখানা চট সম্বল
ওই বাড়িতে ছাদে দেখি তিন তিনটা কম্বল!
সূর্য তুমি একপেশে খুব ওদেরকে দাও রোদ্দুর
আমরা শীতে কেঁপেই মরি দুঃখের সমুদ্দুর।


নালার পাশে বাতাসও বেশ কেন এমন হিংসে
দিনদুখিদের পোশাক কোথায় বিশ্বে একবিংশে?
পানীয় জল পাব কোথায় জলের লাইন বন্ধ
ভোট পাবে না ভেবে বোধহয় রাখেনি সম্বন্ধ।


মানুষ বলে হয় না মনে আমরা যেন জন্তু
বনে থাকলে মিলত সবই খাদ্য-বাকল-তন্তু।
পশুর মতো লোম থাকলে শীত হতো বেশ জব্দ
শুষ্ক পাতার মড়মড়ানি জঙ্গল নিস্তব্ধ।


বনে খাদ্য অঢেল মেলে সবকিছু পর্যাপ্ত
জরোয়াদের মতো হলে লক্ষ ছবি ছাপত।
আজও বেঁচে আছে তাঁরা হয়নি তো বিলুপ্ত
দারিদ্র্যকে বাঁচিয়ে রাখার কায়দাকানুন গুপ্ত।


দূরদৃষ্টি হারিয়ে গেছে লুটছে নেতা মন্ত্রী
আপন আখের গোছায় শুধু মস্ত ষড়যন্ত্রী।
হাপিত্যেশ সারাজীবন সমাধান দুর অস্ত
যার আছে তাঁর সবই আছে ধান্দাবাজি মস্ত।


© অজিত কুমার কর