*           কৌশলে কেন এ ছলনা
                অজিত কুমার কর


বাইতে পারি পানসি আমি, তাই কি ডেকেছিলে?
ফন্দি তোমার আঁটাই ছিল সুযোগটা বেশ নিলে।
             নৌকা যখন লাগলো ধারে
             নামলে তুমি একলা পারে
ভেবেছিলাম ডাকবে আমায় যাব দুজনে মিলে
  মিথ্যা বলে কেন আমায় এমন ধোঁকা দিলে?


   হালটা ধরে বসে আছি তোমার পানে চেয়ে
দিনেও যেন আমার চোখে আঁধার এলো ছেয়ে।
             কে ডেকেছে তোমায় বনে
              হাজার প্রশ্ন আমার মনে
  ফিরবে কিনা তাও জানি না তুমি ধন্যি মেয়ে!
দ্বন্দ্ব মনে, থাকবো- নাকি ফিরব, নৌকা বেয়ে।


তাকালে না একটিবারও তুমি পিছন ফিরে
ক্ষণেক পরে হারিয়ে গেলে বনেই ধীরে ধীরে।
           বনে আছে বুনো শুয়োর
         পড়তে পারো বিপদে ঘোর
অস্থিরতা বাড়তে থাকে শুধু তোমায় ঘিরে
ভাবছি আমি যাব কিনা অরণ্য-বুক চিরে।


   নৌকোটাকে নোঙর করে নামি বাধ্য হয়ে
এগিয়ে যাই পা-পা করে কাঁটার আঘাত সয়ে।
            বনের ভিতর ঝরনা-পাশে
           কাশের চমক পুজোর মাসে
   বসে আছো শিলার 'পরে ধারা মন্দ লয়ে
কেউ পাশে নেই একলা তুমি শিউরে উঠি ভয়ে।


  সামনে গিয়ে দাঁড়াই আমি চরণযুগল জলে
  কীসের জন্য বনে এলে, কেন এ কৌশলে!
            অলীক স্বপ্ন দেখায় লোকে
             পস্তাতে হয় পরে শোকে
   চোখাচোখি হতেই দেখি অশ্রু পড়ে ঢলে
  চলো ফিরি, পক্ষীরাও ফিরছে দলে দলে।