*                  রূপের আগুন
                  অজিত কুমার কর


  রূপের আগুন কেমনতরো বুঝল তরু হাড়ে হাড়ে
   সবটুকু রস নিংড়ে নিল স্বর্ণলতা পেঁচিয়ে ঘাড়ে।
                  হয়ে গেছে অনেক দেরি
               এমন ভুল তো ওর নিজেরই
আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে আছে এখন কি আর ওকে ছাড়ে।


যেদিন প্রথম কাছে এল, রূপের মোহে অন্ধ তরু
প্রেমসুধারস ভিজিয়ে দিল, হৃদয় ছিল শুষ্ক মরু।
                  ক্রমে ক্রমে অন্তরঙ্গ
                   রূপবতী দিল সঙ্গ
  উদ্ভিন্নযৌবনা তখন, স্বর্ণলতার কাঁকাল সরু।


    ওর প্রভাবে গৌণ হল বন্ধু তরুর উপস্থিতি
  তখন তরুর খেয়াল হল, সঞ্চারিত হল ভীতি।
                মায়াজালে বদ্ধ যে সে
                মুক্তি দেবে কেবা এসে
প্রেম যে এমন সর্বনাশা, পায়নি তেমন পরিচিতি।


  ওর আঁচলে পড়ল ঢাকা রইল তরু অন্তরালে
তরু কোথায়? হেমাঙ্গিনি নৃত্য করে সাঁঝ সকালে।
                বেঁচে আছে কার দয়াতে
              কেহই নজর দেয় না তাতে
সত্যটা কী জানল না কেউ কী করে ও' দীপক জ্বালে।