আমি শুনতে পাই


আমি আড়ি পাতলেই শুনতে পাই
বাতাসের ফিসফিসানি-
ঝরাপাতা রোদ্দুরের কতশত গল্প,
চাই না আমি অধিক ভান করে!
কিন্তু কান কে যে বিরাম দিতে পারিনা।
মৃত্যুঞ্জয় যেন আকস্মিক দুর্ঘটনার কবলে-
আজ কাতরাচ্ছে, কিন্তু সব পথ বন্ধ!


আমি আমি,আড়ি পাতলেই, চোখ বুজে
বৃষ্টির কান্না শুনতে পাই,
ঝরা শ্রাবনের ঘ্রাণে বিভোর হই!
নিশার স্বপনে ক্ষুধার্ত শকুন দেখি-
বুকে হাত দিয়ে পাজরের মাপ নেই,
এবার বুঝি সব হতাশার শেষ হবে!
আর্তনাদ শুনে চোখ খুলে দেখি-
সবজি, মাছ ওয়ালারা, হাঁক দিয়ে যায়,
মন্দিরের ঘন্টা শুনতে পাইনা,
বাইরের দৃশ্য উঁকি মারে, ভরসা পাইনা!


একফালি সূর্য রশ্মি জানালার ফাঁক দিয়ে
ভয়ে ভয়ে ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে,
নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গ হয়!
জীবন অস্তিত্বের সন্ধানে রত হই,
মনে হয় মৃত্যুঞ্জয় যেন দুর্ঘটনার কবলে আজ!


পিকলু চন্দ
২৯ শ্রাবণ,১৪২৭