জীবন মরণ বিধির লিখন
              -লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী


জীবন মরণ বিধির লিখন সারা জীবন সহে ক্লেশ,
কান্না দিয়ে জীবন শুরু কান্না দিয়েই জীবন শেষ।
প্রথম যেদিন এসেছিলে তুমি এই ধরণীর বুকে,
কেঁদেছিলে তুমি একাই, সবার হাসি ছিল মুখে।


সংসার সমরে কত ক্লেশ সহন করিলে একা তুমি,
মরণে তুমি হাসিবে সুখে, কাঁদিবে প্রিয় জন্মভূমি।
আত্মীয়বান্ধব যত সবাই কাঁদিবে শুধু মরণের দিন,
সারাজীবন কাঁদিবে জীবনসাথী শোধিবে সবার ঋণ।


জীবনের খেলাঘরে পেতেছিলে তব সুখের সংসার,
মরণের পরে কেবা তুমি? কেবা হবে তব আপনার?
বাড়ি গাড়ি,  টাকা পয়সা, জমিজমা সবই পড়ে রবে,
একাই তুমি এসেছিলে আবার একেলাই যেতে হবে।


লক্ষ্মণ বলে, অন্তিমকালে মরণে কেহ কারো না হয়,
সময় থাকতে তাই শ্রীহরি ভজ, এ সংসার মায়াময়।