তোমার যখন গুছানো জীবন,আমি তখন এলোমেলো ঘরে গাঁ এলিয়ে দেই
তুমি যখন আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্ন দেখ, আমি তখন অচেনা ভাঙ্গা ঘরেই


তুমি যখন ভাবতে বসো, ব্যস্ত তুমি রাঁধতে বসো, সময়ের অভাবে
আমি তখন তোমাকে নিয়েই ভাবি, সেই চিরচেনা পুরোনো স্বভাবে।


না পাওয়ার স্মৃতি ভুলে, যখন তোমার ভীষণ রুপ
আমি তখন শব্দের জালে অনুভূতি আটকাতে ব্যস্ত খুব


তুমি যখন চাঁদের সীমানা পেরিয়ে, আমি তখন গ্রামের গোয়াল ঘরে
তুমি যখন আঁধারের রহস্য খোঁজ, আমি তখন আঁধারী অন্ধকারে


তুমি যখন ঘর বাঁধার স্বপ্ন বুন, আমি তখন খুচরো দুঃখের হিসেব কষি
তুমি যখন সুখ কুড়াতে ব্যস্ত ভীষণ, আমি তখন দুঃখ পুষি


তুমি যখন মনোহারি গল্প লিখ,আমি তখন ব্যাথার পংক্তি খুঁজি
তোমার যখন আনন্দে বিস্মৃত চোখ, আমি তখন বিষাদের চোখ বুজি


তুমি যখন বিলাসী ভীষণ, ভদ্রতার মুখোশে রাষ্ট্রীয় কসাই
আমি তখন খিদের আগুনে, বাঁচার স্বপ্ন পুষে, সুখের হাঁড়ি বসাই