ঝর্ণাটি দেখে বাবুরাম
গলা ছেড়ে গান গাইছে অবিরাম।
কণ্ঠে তার লেগেই আছে  
ফাঁক পেলে প্রতিদিন গান গাইছে।
সেই দেখে এগিয়ে এসে
গুরুদেব বসলেন শিষ্যের পাশে।
বললেন মজার ছলে
সঙ্গীতটা ভালোভাবে শিখতে হলে,
আদা জল খেয়ে সকালে
রক্ত তিলক পড়বে নিজ কপালে।
রেখে দিয়ে সেলফি তুলে
রেওয়াজ শুরু করো দুপুর হলে।
তাহলে সময়ে বুঝবে
‘ফেল’এর ভাবনাটা ঠিক ঘুচবে।
ভোটের বাদ্যি বাজলেই            
খেল দেখাতে ছুটবে গো দুপুরেই।
পাশ-ফেল মিলবে শেষে
রেওয়াজের গুনে ভোটের বাক্সে                    
বাক্সটি খুললে পরে          
হিসাব মিলিয়ে নিও উল্লাস ভরে।