কালের অতল তলে চাপা পড়ে হারায় কত শত কাল
হারাওনি তুমি শতবর্ষ পরেও,এখনও আছো অটুট,আছো সমুজ্জ্বল!
তুমি এলে জয় করে চলে গেলে মাত্র পঞ্চান্ন বছরে
কে বলে নেই তুমি এখনও আছো লোকান্তরে
আজ শতবর্ষ পরে মুজিব তোমায় মনে পড়ে!


অজপাড়াগাঁয়ের সেই ছোট্ট খোকাটি আজ বিশ্ব নন্দিত
কখনও ভাষার জন্য কখনও দেশের জন্য অকুতোভয়ে লড়তে লড়তে
দলের নেতা দেশের নেতা, নেতা থেকে জাতির পিতা
তোমার অসামান্য অবদান বিশ্ববাসী আজো শ্রদ্ধাভরে স্বরণ করে
আজ শতবর্ষ পরে মুজিব তোমায় মনে পড়ে!


মুজিব তুমিতো চিরঞ্জীব,মরেও হয়েছো অমর,রেখেছো খ্যাতি ধরে
যতদিন থাকবে বাংলা তুমি থাকবে ততদিন বাংলার আকাশে নক্ষত্র হয়ে
তুমি ছিলে তুমি আছো তুমি থাকবে যুগযুগ বাঙ্গালীর অন্তরে
আজ শতবর্ষ পরে মুজিব তোমায় মনে পড়ে!


তোমার কন্ঠ দমিয়ে রাখতে চেয়েছিল যারা জানুক চরম কাপুরুষ তারা
শতবর্ষ পরে তোমার কন্ঠের ধ্বনি-”এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম,
এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম”প্রতিধ্বনিত হয়ে বাজে কোটি ভক্তের অন্তরে
আজ শতবর্ষ পরে মুজিব তোমায় মনে পড়ে!


তোমার হাতে গড়া সৈনিক তারা যারা পতাকা হাতে এখনও রয়েছে খাড়া
পতাকার মান হবেনা ম্লান প্রয়োজনে ওরা নিজেকে দিবে বলিদান
তুমি ভেবনা নেতা, তুমি যে এদের পিতা ওরা যে তোমার সন্তান
ওরা ছিল ওরা আছে ওরা থাকবে চিরদিন তোমার আদর্শ আকঁড়ে ধরে  
আজ শতবর্ষ পরে মুজিব তোমায় মনে পড়ে!


আজ শতবর্ষ পরে দলের হাল দেশের হাল ধরে আছে তোমার সুযোগ্য কন্যা-
বাংলার রাণী মানবতার মা বিশ্ব নেত্রী শেখ হাসিনা
তোমার অসমাপ্ত কার্যাবলী হতে দিবেনা সে জলাঞ্জলি, গড়বেই সে
তোমার চির লালিত স্বপ্নের সোনার বাংলা!
শতবর্ষ পরে আজ এই দৃপ্ত শপথ জাগ্রত হোক সকল বাঙ্গালীর অন্তরে
আজ শতবর্ষ পরে মুজিব তোমায় মনে পড়ে!


রচনাকালঃ ০৪/০৩/২০২০
স্থানঃ রামপুরা,ঢাকা।


(মুজিব শতবর্ষ পি ডি এফ বইয়ের জন্য)