প্রথম দেখা তোমার সাথে, ফ্লাইটে।
আমার স্থায়িত্ব দুদিন ফ্রান্সে,
তোমার পক্ষকাল।
প্রচণ্ড গতি নিয়েই কাছাকাছি,
যেন আকাশপথে বোয়িং বিমান।


এক মধুর হাসি উছলে পরেছিলো,
বলেছিলে, নটিবয়ের দেখা ক্যালকাটায় পাই যেন!
আমার ঠোঁটে এঁকেছিলে ছোট্ট চুম্বন,
মাতাল করা মনপেয়ালা মদিরায় ভরপুর,
টালমাটাল অবস্থায় হোটেলে ফিরলাম।


এখন আমি কোয়ারেন্টাইনে বন্দী,
ওখানেই শুনেছি তোমার মৃত্যুসংবাদ!
আমিও কিন্তু পজেটিভই,
অথচ আমরা কেউ জানতামই না,
করোনা ভাইরাসের করালগ্রাসের কোনো হদিশ ।


মনেপ্রানেই চাই ,
ওর সাদামাটা না বোঝা চুম্বনের সাড়া আবারও,
তাতে যদি পরপারে যেতেও হয়, আবার যেন যাই।