একচুল খুদ নেই, একদম শাদা
পুরো আকাশটা যখন-দেখবে তুমি;
জানতেই পারবেনা, ব্যবধান বুঝবেনা
শত রঙ্গে আছে কত! শত শত আল্পনা।


গভীর নীলে- নীলাভ আকাশে
শাদার পরিচয়ে, শাদা মেঘ ভাসে,
শাদা মেঘের মাঝে, বহুরুপে বেশে
কালো মেঘগুলিও, তার মতই হাসে।


রংধনুর সাত রঙ, দেখবে যখন
রঙ্গে রঙ্গে ব্যবধান, বুঝবে তখন,
এক রঙ্গে জীবন, হবেনা অনুধাবন
ধোয়ায় ধোয়ায় ফাকা, হবে এ-ভুবন।


এমন যদি হত, এক রঙ্গে সব হত-
শত রঙ্গে ব্যবধান, বোধ হত নাতো!
লাল লালের মত, নীল নীলের মত
থাকবেই শত রঙ, সে তার মত।


লাল হতে চেয়ে, কাল ডেকে এনোনা
হলুদের হাসি দেখে, রাগ পোষে রেখোনা,
কালো হয়ে তুমি; কালো ভূল বুঝনা
আপনার রঙ্গে কর, জীবনের আল্পনা।


বহুরুপে জীবন, মানুষ করছে যাপন
মেনে নিও তুমিও, মানুষ তারই মতন,
যার যার রুপছায়া, হবে তার আপন
বৃথায় ভেঙ্গো না কেউ, মানবিক বন্ধন।