কান্না হবে? চিৎকারে হাহাকারে লুটে যাব?
সহ্যতার সীমা ছাড়িয়ে যাবে?


হৃদয় উত্তপ্ততায় আগুনের শিখা হয়তো চোখে ছড়াবে
হৃদয় ফেটে রক্ত ঢলে পড়বে; দু চোখ দিয়ে
তবুও আমি বিচ্যুত হব না এ মাঠ থেকে,
তাজা সবুজ ঘাসে শিশিরের কণা
পোড়াতে দেব না-কালো পরমাণুর আঘাতে,
কাগজের মত উড়তে দেব না এই মাটি-
মানুষের প্রাণ- কোন জবরদস্তি সংঘাতে,
অকতোভয় যুবকদল লড়ে যাব পৃথিবীতে।


বিশ্ব গড়ায়ে বিশ্বের দুয়ারে দুয়ারে
পুতে রাখা বোমা মানুষের ঘরে ঘরে
কুড়িয়ে কুড়িয়ে তুলে দিব তালুর উপরে
যাদের হস্তক্ষেপে পৃথিবীতে আগুন জ্বলে।
জোর- ক্ষমতার যুদ্ধের তোপে পরে
আর পোড়তে চাইনা এই অবকাঠামো তরে,
এ যেন মানুষ অনিষ্টের শয়তানি প্রক্রিয়া
শান্তির পৃথিবীতে সংঘাতের গোপন ক্রিয়া।


নর্দমায় ফেলে দেব যত সব আবর্জনা।
মানুষের সাথে মানুষের দুঃখ সুখের খেলা
সফলতা ব্যর্থতা থাকবেই এই মাঠে,
তবে হিংস্রতা পাশবিকতা, অমানবিকতা
রুখে দেব কদমে কদমে- মানবো না বাধা বাধ্যকতা।
জ্বলবে আগুন জ্বলুক-
উত্তপ্ত হৃদয়ের আগুন!
চিৎকারে ঝাপিয়ে পরে
নিভিয়ে দেব একদিন যত সব আগুন
জেগে উঠিবে সেইদিন কালের সকল তরুণ,
থাকবেনা মৃত্যুর খেলা মানুষের ঘরে ঘরে
থাকবেনা ধ্বংসলীলা পৃথিবীর এই প্রান্তরে।