মফিজ খান-
আপনার শান গেয়ে
মনগড়া যুক্তি দিয়ে,
লোকজনার কান পেয়ে
মুখখানা দেন বাড়িয়ে।


নামী দামী গুণী মহাজন
সবেই তাহার নিকট আপন,
এসব গল্পের অগাধ গুঞ্জন
করে বেড়াই পেলেই লোকজন।


লোকজনা টের পায়-
তবুও, কথার তোপে আজ্ঞা পেয়ে
বধির সেজে দীক্ষা দিয়ে,
মফিজ খানের মুখে চেয়ে
আজব কথা যায় স’য়ে।



মফিজ খান বুজতে না পান
নিজের শান গেয়েই বেড়ান,
কারো বিষয় বুঝতে না চান
নিজের মনে শান্তি যোগান।


মফিজের চেনা যারা
কিছুই পারেনা তারা,
সেই-ই সব করতে পারে
ব্যাখ্যা দিতেই গল্প করে।


যতটুকু আছে তার
তারই বেশি দেখাই ধার,
কাজের বেলাই পন্ডু কারবার
মুখের কথাই খই ফুটে তার।


ক্ষমতার কপট টীকলি পরে
তারা, তোমার আমার মাঝেই ঘুরে,
যবে আপন স্বার্থ উদ্ধার করে
মুখ গুটিয়ে কেটে পরে।


অযথা কথায় মান হারায়ে
আসল কথা পান না পরে,
চাপাবাজির ভ্রান্ত ঘোরে
আপন ফাদেই পরে মরে।


( বিঃ দ্রঃ- ইহা একটি রুপক কবিতা।)