মুড়ি খান তৈল খান লেবু খান,
কাঁচা মরিচ-ধনে পাতা- পিঁয়াজ
চানাচুর মেখে ঝালমুড়ি বানিয়েও
খেতে পারেন।
সর্দি কমে যাবে, জ্বর নেমে যাবে।
লাউ খান সিম খান বরবটি আলু সিদ্ধ
করলা ভাজি শাক সবজি খান,
ছোট মাছের সাথে বেলেবু অথবা
জলপাইয়ের ঝোল দিয়ে ভাত খান।
ডিম দুধ কলা আনারস কমলা
মুখে যা রুচি ধরে সব খান।
দুধ খেয়ে আনারসতো খাবেনই না,
ঠান্ডা পানি খাবেন না,
চকলেট খাবেন না,
বক্কর চক্কর খাবার খাওয়া নিষেধ।
সিভিটা খেতে পারেন
বেশিবেশি পানি খাবেন অবশ্যই।
অবশ্যই মাথায় পানি ঢালবেন
আবার,
খুব ভাল করে মুছে নিবেন।


দুইদিন ঔষধ না খেলেও চলবে
শরীর মুছেই জ্বরপ নামিয়ে ফেলবেন,
তিনদিন শরীরের যত্ন নিন
মনের যত্ন নিন, ঠিক হয়ে যাবেন।


অবশ্যই বিকেলবেলা শোয়ে থাকবেন না
হাটবেন।
হয়তো, হাটতে হাটতে জেনে যাবেন-
ফড়িংয়ের হৃদয়ে ব্যাকুল ঝড় বয়ে যায়।
ফড়িংয়ের অসুখ-
অসুখের সুখেই আপনাদের মাঝে
শব্দ আর ধ্বণির পরিচয় খুঁজে,
সকাল দুপুর বিকেল সন্ধ্যা রজনীর
আলো ও অন্ধকারে তাকে পাওয়া যায়।