দুই দিন তোরা ঘটা করে স্বরণ করিস মাত্র
আমাদের মনে সব সময় বাংলা মায়ের কথা অনুড়িত হয় ।  
তাইতো যুদ্ধের দামামা বাজিয়েছি স্বাধীনতার জন্য
সকালের সোনালী আলো, বিকেলের স্নিগ্ধতায়
বাংলা মায়ের আঁচলে শীতল হতে, ভেদাভেদ ভুলে সবাই
একসাথে চলার প্রত্যয়ে রক্তের তেজ আমাদের তারিয়ে নিয়ে গেছে
শত্রুর সম্মুখে, জীবন মরণ লড়াইয়ে ।
অনেক কষ্টে সেই দিনগুলি কেটেছে
অনেক রক্ত ঝরেছে, দিতে হয়েছে আপনজনদের বিসর্জন  
এর পরেই এসেছে আমাদের কাঙ্ক্ষিত অর্জন, বিজয়, স্বাধীনতা ।
এখন ছেলে মেয়েরা স্বাধীনতার পালকে উড়ছে,  
ইচ্ছেমত এদিক সেদিক ঘুরছে
বাঁধা বিপত্তির সম্মুখীন হতে হয় না,
চাষী ভাইয়েরা অবাধে ফসল ফলাচ্ছে
যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে এলাকার চিত্র পাল্টাচ্ছে,
এমন বর্ণিল দিনের সন্ধান পেয়েছিস তোরা ।  
যুগের পালে কৃত্তিমতার হাওয়া লেগেছে  
মানুষে মানুষে সৌজন্যতাবোধ হারিয়ে যাচ্ছে
স্বাধীনতার ৫০ বছর পরে ।
অনলাইন জগতে চলছে তথ্যের আদান প্রদান
ঘর কেন্দ্রিক জীবন, নব প্রযুক্তি যেমন সুফল বয়ে আনছে
পক্ষান্তরে মানুষকে করছে স্থবির । যার ফলশ্রুতিতে  
পারস্পরিক সম্পর্কের যেমন অবনতি হচ্ছে তেমনি
সামাজিক অবক্ষয় ও এর সাথে সমানুপাতিক হারে বাড়ছে ।
মানব প্রেম নেই, দেশের প্রতি প্রেম নেই, মুখে বলে আর ব্লগে লিখেই
দেশের প্রতি দশের প্রতি লোক দেখানো ভালবাসায় ব্যস্ত ।
প্রকৃত অর্থে যা মাখন ফলের মত উপকারে আসছে  
মানব সেবায় তথা জাতীয় উন্নয়নে,  
উন্নয়ন অনেকাংশে স্বার্থের চাদরে আবৃত ।
মানবতা বইয়ের পাতায় অন্ধকারে কাতরায়
অনাহারে কাঁদে ক্ষুধার্ত শিশু, কূল হারা পথিক,
সমাজ সচল করা পরিশ্রমী দিনমুজুর ।
সিংহ ভাগ জনগণ যেখানে তাদের মৌলিক অধিকারের পেছনে ছুটে  
সেখানে নীতিভ্রষ্ট কিছু মানুষরূপী প্রাণীর স্বার্থান্ধতার কারনে
দেশের সামগ্রীক উন্নয়নে বিরূপ প্রভাব স্পষ্টত পরিলক্ষিত ।
জানছ বাপ আমরা মুক্ষ সুক্ষ মানুষ মা বোন ভাইদের কথা চিন্তা করে
নিজেদের উন্নয়নের সোপান তৈরি করতে স্বাধীনতা সংগ্রাম করেছি ।
আমাদের কোন অনৈতিক লোভ তাড়া করেনি ।
বড় দুক্ষের বিষয় কিছু  শিক্ষিত সভ্য মানুষরা দেশের এমন হেন
পরিস্থিতি তৈরি করে দেশান্তরী হচ্ছে গুটি করেক টাকার নেশায় ।
আরে বাপ দাদার ভিটা মাটি ছেড়ে ভিন দেশে গিয়ে কি সুখ আছে ?
নাই, ওখানে যাযাবর হয়েই বেঁচে থাকতে হয়, যন্ত্রের মত চলতে হয় ।
নৈতিকতা মানবিকতা বিসর্জন দিয়ে কেউ ভাল থাকতে পারে না ।
আমাদের নৈতিক বিজয় এখনো অনেক দূরে আছে  
তাঁকে কর্ম দিয়ে অর্জন করতে হবে ।
সবার আগে আমাদেরকে মানুষের মত মানুষ হতে হবে
তবেই বিজয় ধরা দেবে আমাদের পাঁজরে,  
হাসি, আনন্দে মানুষ জীবিকা উপার্জন করবে ।
অনেক কথা বললাম বাপ পারলে মানুষের উপকার করিও
অপকার করার চিন্তা করাও শয়তানের কাজ ।
ভালো থেকো, ভালো রেখো বাংলা মাকে।    


০১/০১/২০২১ ইং,
ঢাকা ।