ধার দিয়ে যেতে যেতে তার
দেখি ছুরির ফলার মত
জেগে আছে তার দুই চোখ


পাথরের শরীর কেটে
তাকে জন্ম দিয়েছিল
যে প্রেমিক
মনে হয় আজ


হাজার বছর পরে
সেই আমিই
ফিরে এসেছি
তার মোহনায়


ক্ষয়ে যাওয়া শরীর জুড়ে তার
সেই তীব্র আর্তি এখনও আগুন


তার চোখ, তার দুই চোখ ......


গলিত তপ্ত পাষাণ
যেন ভাঙতে চায়
সময়ের রুদ্ধ মুখ


তার সাথে লিপ্ত সঙ্গমে
যে পাথুরে পুরুষ,
সে আমিই


মিথ্যে সময়, মিথ্যে চরাচর
মিথ্যে এ দেহ অবয়ব
সত্য শুধু অনন্তকাল
এই ধূসর পাথরে


মিলন মহাসুখ।